দাঁতের ব্যাথার ট্যাবলেট এর নাম কি ও দাম কত

প্রায় মানুষের মুখের দাঁতের ব্যথা নিয়ে অস্বস্তি বোধ করতে দেখা যায়। দাঁতের ব্যাথা অনেক মারাত্মক একটি ব্যথা। যা অনেকে এই ব্যথা কে সহ্য করতে পারে না। তবে এটিকে সাধারণ সমস্যা বলা যেতে পারে। এ দাঁতের ব্যথা বিভিন্ন কারণে আমাদের হতে পারে। তবে অতিসত্বর এই দাঁতের ব্যথাকে প্রশমিত করা দরকার। তবে প্রশমিত করতে হলে আপনি বিভিন্ন উপায়  অবলম্বন করতে পারেন। তবে যে উপায়গুলো অবলম্বন করবেন আপনার দাঁতের ব্যথাকে প্রশমিত করতে তা নিয়ে আলোচনা করব। অর্থাৎ দাঁতের ব্যথার ট্যাবলেট নিয়ে আজকে আলোচনা করবো। 

যাদের অতিরিক্ত দাঁতের ব্যথা হয়ে গিয়েছে তিনি বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করেও আপনি আপনার দাঁতের ব্যথাকে নিরাময় করতে পারছেন না। তাহলে আপনি আপনার  নিকটস্থ যে কোন ডেন্টিস্ট  ডক্টরের সাথে যোগাযোগ করে ব্যথা নিরাময় করার বিভিন্ন ট্যাবলেট সেবন করুন। আপনি আপনার দাঁতের ব্যথা অনেকাংশে কমিয়ে আনতে পারবেন। অতএব আপনার যদি দাঁতের ব্যথা অনেক বেশি হয়ে থাকে।  তাহলে আমাদের আজকের আলোচনা থেকে বিভিন্ন দাঁতের ব্যাথার ট্যাবলেট এর নাম জানতে পারবেন। অতএব আপনার দাঁতের ব্যথা নিরাময়ের বিভিন্ন ট্যাবলেটের নাম একটু নিচে প্রবেশ করে জেনে নিন।

দাঁতের ব্যাথার ট্যাবলেট

আপনার এই দাঁতের ব্যথা নিরাময়ের জন্য আপনি বিভিন্ন ধরনের এবং বিভিন্ন গ্রুপের ওষুধ পেয়ে যাবেন বা ট্যাবলেট পেয়ে যাবেন। তবে এর মধ্যে অনেক উপকারী একটি ট্যাবলেট এর নাম হচ্ছে ফ্লুব্লাস্ট ট্যাবলেট। এই ট্যাবলেটটি দাঁতের ব্যথা সহ বিভিন্ন অসুস্থতা নিরাময়ের জন্য ব্যবহার করা হয়। তবে তার যাদের দাঁতের ব্যথা রয়েছে তারাও এই ওষুধটি ব্যবহার করতে পারেন।

তবে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ অনুযায়ী একটি ডোজ হিসেবে আপনাকে গ্রহণ করতে হবে। এছাড়াও আজকের আলোচনায় বিভিন্ন দাঁতের ব্যাথার ট্যাবলেট এর নাম আমরা এখানে উল্লেখ করেছি। যে ট্যাবলেটগুলো আপনার দাঁতের ব্যথাকে অনেকাংশে প্রশমিত করবে। তো চলুন একটু নিচে প্রবেশ করে সেই ট্যাবলেট গুলোর নাম জেনে নেওয়া যাক।

দাঁতের তীব্র ব্যথা হলে কি করবেন

সাধারণত এই দাঁতের ব্যথা সাধারণ হলেও ধীরে ধীরে তা তীব্র আকার ধারণ করে। যা একজন রোগী সে দাঁতের তীব্র ব্যথাকে সহজে গ্রহণ করতে পারেন না। এখন আপনার যদি সেই দাঁতের ব্যথা তীব্র হয়ে থাকে তাহলে কি করবেন।  উত্তর হচ্ছে আপনার দাঁতের ব্যথা তীব্র হলে আপনি বিভিন্ন ট্যাবলেট গ্রহণ করতে পারেন। যেগুলো দাঁতের ব্যথা নিরাময়ের জন্য ব্যবহার করা হয়।

তবে আপনি আপনি যেকোন ফার্মেসির দোকানে বিভিন্ন ওষুধ পেয়ে যাবেন। এখানে আমরা সে দাঁতের ব্যথা নিরাময়ের বিভিন্ন ওষুধের নাম উল্লেখ করেছি। যা জেনে নেওয়া আপনাদের জন্য অধিক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আপনি আপনার দাঁতের ব্যথাকে প্রশমিত করতে বিভিন্ন ঘরোয়া উপায় অবলম্বন করতে পারেন। তবে পূর্বে এই ঘরোয়া উপায় গুলো অবলম্বন করেই তাদের দাঁতের ব্যথাকে প্রশমিত করত।

আপনি চাইলে এই ঘরোয়া উপায় গুলোও অবলম্বন করেও আপনার দাঁতের ব্যথাকে প্রশমিত করতে পারেন। অতএব আজকে আপনাদের জন্য দাঁতের ব্যথা নিরাময়ে বিভিন্ন ট্যাবলেট এবং ঘরোয়া উপায়গুলো নিয়ে আজকে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। তাই সম্পূর্ণ পোস্ট প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত একবার দেখে নিন।

দাঁতের ব্যথার ওষুধের নাম কি

নিম্নে আমরা বিভিন্ন দাঁতের ব্যথা নিরাময়ের জন্য ওষুধগুলো নাম উল্লেখ করেছি। যেগুলো আপনাদের জেনে রাখা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। তবে ওষুধ গুলো আপনারা ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী সেবন করবেন।  তা না হলে আপনাদের শরীরে অনিয়মিত ওষুধ সেবনের ফলে বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। তবে নিম্নের দেওয়া উল্লেখিত ঔষধ গুলো দাঁতের ব্যথা সহ বিভিন্ন রোগ নিরাময়ের জন্য গ্রহণ করা হয়। অতএব যাদের দাঁতের ব্যথা রয়েছে নিচের দেওয়া ওষুধ গুলোর নাম জেনে নিন। ওষুধ গুলোর নাম হচ্ছেঃ

  • Tory(120mg
  • Algirex(120mg) 
  • Arcoxia(120mg)
  • Cox-E(120mg) 
  • Ecox(120mg)
  • Etox(60mg)
  • Etorix(120mg)
  • Torimon(90mg)

দাঁতের ব্যথার ওষুধের দাম কত

এই দাঁতের ব্যথার বিভিন্ন ওষুধ রয়েছে। যেগুলো বিভিন্ন কোম্পানি দ্বারা তৈরি হয়ে থাকে।  তাই কোম্পানির ওষুধ গুলোর দাম বিভিন্ন পার্থক্য হয়ে থাকে। আপনি সর্বনিম্ন দাতের ব্যাথার ওষুধ ৮ টাকা দিয়ে ক্রয় করতে পারবেন। আর সর্বোচ্চ প্রায় ১৫ টাকা। তবে এই দাঁতের ব্যথার ওষুধের দাম এর থেকে বেশি হতে পারে।

পোকা দাঁতের ব্যথা কমানোর ওষুধের নাম

দাঁতের ব্যথা কমানোর বিভিন্ন ওষুধ আপনি যে কোন ফার্মেসীর দোকান থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।  তবে এখানে আমরা যাদের যাদের পোকা ধরে এবং ব্যথা অনুভব হয়, ঠিক তাদের ব্যথা প্রশমিত করার জন্য বিভিন্ন ঔষধ এর নাম আমরা এখানে উল্লেখ করেছি।

একটি ওষুধ অনেকগুলো রোগ নিরাময়ের জন্য ব্যবহার হয়। এর মধ্যে পোকা দাঁতের ব্যথা কমানোর বিভিন্ন ওষুধ রয়েছে। অতএব যাদের পোকা দাঁতের ব্যথা রয়েছে,সে ব্যথা কমানোর ওষুধের নাম হচ্ছেঃ

  • Fenamic
  • Napa one
  • Tory60
  • Exilok 20
  • Amodis 400

যেসব কারণে দাঁতের ব্যথা হয়

বিভিন্ন  কারণে দাঁতের ব্যথা হতে পারে। অনেকে হয়তো এ দাঁতের ব্যথার কারণ গুলো ইতিমধ্যে জেনে নিয়েছেন। আরো কিছু দাঁতের ব্যথার কারণ এখানে আমরা উল্লেখ করেছি। অতএব নিম্নের দেওয়া কয়েকটি দাঁতের ব্যথার কারণ গুলো দেখে নিন।

  • শক্ত ব্রাশ দ্বারা দাঁত ব্রাশ
  • বেশি জোরে এলোমেলোভাবে দাঁত ব্রাশ
  • টকজাতীয় বা এসিডিক খাদ্য ও জাতীয় ব্যবহার
  • পরিপাকতন্ত্রের পীড়ার কারণেও এনামেল ক্ষয় হতে পারে।
  • মাড়ি সরে যাওয়ার কারণে cementum বের হয়ে যায়। cementum সবচেয়ে পাতলা আবরণী, যাহা সহজেই ব্রাশ করার কারণে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে যায়।
  • দাঁত ভেঙে গেলে আঘাতজনিত কারণে এনামেলের আবরণী উঠে গেলে অথবা দাঁত ক্র্যাক হয়ে গেলে।
  • দাঁত ফিলিং বা ক্যাপ করার সময় প্রয়োজনের অতিরিক্ত এনামেল কেটে ফেললে হতে পারে।
  • দাঁত সাদা করা প্রক্রিয়ার কারণে হতে পারে।
  • দাঁতের ফিলিং উঠে গেলেও দাঁত শিরশির করতে পারে।
  • বয়সজনিত কারণে এনামেল ক্ষয় হতে পারে।

দাঁত ব্যথা প্রতিরোধে করণীয়

যেকোনো রোগ শরীরে প্রবেশ করার পূর্বে আমাদের সতর্ক থাকা উচিত। যেন আমাদের শরীরে কোনমতেই রোগীর বাসা বাঁধতে না পারে। এজন্য সবসময় আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে। তবে যাদের দাঁতের ব্যথা হয়, তাদের বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে। তবে আমরা সবসময় চেষ্টা করব দাঁতের ব্যথা কে বেঁচে থাকতে। তো চলুন জেনে নেই, কোন কাজগুলো করলে আমরা নিমিষেই দাঁতের ব্যথা থেকে দূরে থাকতে পারবো। অতএব নিম্নের দাঁত ব্যথা প্রতিরোধে করণীয়গুলো গুলো উল্লেখ করা হলোঃ

  • লবঙ্গ
  • লবণ
  • পেয়ারা পাতা
  • সরিষার তেল
  • দুর্ভাঘাস
  • রসুন
  • পেঁয়াজ

উপরিউক্ত জিনিসগুলো নিয়ে বিস্তারিত নিম্নে আলোচনা করেছি। এবং কিভাবে জিনিসগুলো গ্রহণ করবেন তাও উল্লেখ করেছি। তবে ডাক্তারের শরণাপন্ন না হয়ে  উপরে দেওয়া উল্লেখিত জিনিসগুলো নিয়মিত খেলে আপনার দাঁতের ব্যথা কমে যাবে এবং দাঁতের ব্যথা অনেকাংশে প্রতিরোধ করবে।

দাঁতের ব্যথা কমানোর দোয়া 

অনেকের দাঁতে ব্যথা রয়েছে, যারা বিভিন্ন ওষুধ বা ঘরোয়া উপায় গুলো অবলম্বন করেও দাঁতের ব্যথা কোনোমতে ঠিক হয় না। এমন অস্বস্তিকর অবস্থায় একমাত্র মহান আল্লাহ তায়ালা শেষ ভরসা।  অনেকেই বিভিন্ন দোয়া কালাম পাঠ করে নিরাময় করে থাকেন। এবং বিশ্বাস করে থাকেন মহান রাব্বুল আলামিনের উপর। সেই পরিপ্রেক্ষিতে দাঁতের ব্যথা নিরাময় করার জন্য বিভিন্ন দোয়া রয়েছে। যে দোয়া গুলো নিয়মিত পালন করলে আল্লাহর রহমতে দাঁতের ব্যথা অনেক কমে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।  তবে আপনাদের সুবিধার্থে সেই দোয়াটি নিম্নে উল্লেখ করেছি। দোয়াটি হচ্ছেঃ

  • উচ্চারণ : কুল হুয়াল্লাজি আংশাআকুম ওয়া ঝাআলালাকুমুস সাম্আ ওয়াল আব্ছারা ওয়াল আফয়িদাতা ক্বালিলাম্মা তাশকুরুন।’(সূরা মুলক : আয়াত ২৩)

দাঁত ব্যথার ঘরোয়া চিকিৎসা

সকল প্রকার রোগের ঘরোয়া চিকিৎসা রয়েছে। শুধুমাত্র সঠিক উপায় গুলো অবলম্বন করলেই আপনার যে কোন রোগ ঘরোয়া উপায়ে নিরাময় করতে পারবেন। তবে আপনার যদি দাঁতের ব্যথা হয়ে থাকে তাহলে আপনি বিভিন্ন উপায়ে অবলম্বন করে আপনার দাঁতের ব্যথাকে নিরাময় করতে পারবেন।  এছাড়াও যাদের দাঁতের ব্যথা তীব্র আকার ধারণ করেছে তাদের জন্য এখানে ঘরোয়া উপায় গুলো  উল্লেখ করা হয়েছে। তাই একটু নিচে প্রবেশ করে আপনার দাঁতের ব্যথাকে নিরাময় করতে ঘরোয়া উপায় গুলো দেখে নিন।

  • লবঙ্গঃ

আপনার দাঁতে ব্যথা নিরাময়ের জন্য এ লবঙ্গ অনেক বেশি উপকারী হতে পারে। যেভাবে এই লবঙ্গ সেবন করবেন তা হচ্ছেঃ একটি লবঙ্গ ব্যথা দাঁতের ওপর রেখে দিন, চিবোনোর দরকার নেই। ফেলেও দেবেন না। যে পর্যন্ত আপনার দাঁতের ব্যথা না কমছে সে পর্যন্ত মুখের ভিতর রেখে দিন। আশা করা যায় এভাবে আপনার দাঁতের ব্যথা কিছুটা কমে আসবে। 

  • লবণঃ

দাঁত ব্যথা কমানোর আরো একটি ঘরোয়া উপায়গুলোর মধ্যে লবণ হচ্ছে অন্যতম এবং এটি মুখের ভেতরে যেকোনো ইনফেকশন সারাতেও অনেক বেশি কার্যকরী। তাই নিয়ম করে একগ্লাস কুসুম গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে নিন। অতঃপর সেই পানি দিয়ে ভালোভাবে আপনার মুখ কুলি করুন। দিনে  কম পড়ে হলেও ৩-৪ বার গুলি করুন।

  • পেঁয়াজঃ

এই পেঁয়াজে আছে অ্যান্টিসেপটিক,অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিমাইক্রবিয়াল উপাদান যা আপনার  দাঁতের ব্যথা, জীবাণু সব কিছু থেকে নিরাময় করতে অনেক বেশি উপকার করে। এছাড়াও এই পেঁয়াজ মুখে চিবিয়ে খেতে পারেন খেতে পারেন। তা নাহলে আক্রান্ত স্থানে কিছুক্ষণ রেখে দিন। দিনে অন্তত ২-৩ বার এইভাবে করুন দাঁত ব্যথা কমে যাবে।

  • রসুনঃ

দাঁত ব্যথা কমানোর একটি অন্যতম মাধ্যম বা ঘরোয়া উপায় হচ্ছে রসুন। অনেকে এ রসুন ব্যবহার করে দাঁতের ব্যথা কমিয়ে থাকেন। বিশ্বাস না হলে আপনি এ রসুন আপনার মুখে কতক্ষণ দিয়ে রাখতে পারেন।  যাতে তীব্র ব্যথা রয়েছে তাদের জন্য এর ওষুধ অনেক বেশি উপকারী। এক নিমিষেই দাঁতের ব্যথা দূর করে দেয়। আর বহুগুণে ভরপুর রসুন এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক বেশি। চিবিয়ে খেতে ভালো না লাগলে রসুনের কোয়া ব্যথায় আক্রান্ত দাঁতে চেপে ধরে রাখু*ন।

  • দূর্বা ঘাসঃ

এছাড়াও দূর্বা ঘাস দ্বারা দাঁতের ব্যথা  কমানোর অনেক প্রমাণ রয়েছে। দূর্বা ঘাসের  রস দাঁতের ব্যথা কমাতে পারে। এটা দাঁতের স্বাস্থ্য ভাল রাখতেও সহায়তা করে। আপনি চাইলে এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। 

  • সরষের তেলঃ

এরপর রয়েছে সরষের তেল। যা দাঁতের যন্ত্রণা কমাতে  অনেক বেশি সাহায্য করে। আপনি চাইলে দাঁতে লাগাতেই পারেন সরষের তেল। এক্ষেত্রে তেলের সঙ্গে সামান্য নুন মিশিয়ে নিতে পারেন। 

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ দাঁতের ব্যথা তীব্র হলে অতি সত্যর ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন। 

দাঁতের মাড়ি ব্যাথার ট্যাবলেট

অনেক সময় অনেকেই দাঁতের মাড়িতে তীব্র ব্যথা অনুভব করে থাকে। এই ব্যথা বিভিন্ন কারণে হতে পারে। অনেকের নতুন দাঁত গজায় অথবা দাঁতে পোকা ধরার কারনে দাঁতের মাটিতে ব্যথা হতে পারে। এই ব্যথা নিরাময় করার জন্য আপনি গড়া পদ্ধতি এবং দাঁতের ব্যথার ট্যাবলেট সেবন করতে পারেন। প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য আপনি গরম পানির সাথে অল্প পরিমাণ লবণ মিশ্রিত করে গড়গড়াসহ করতে পারেন। এতে করেও যদি আপনার ব্যথা না কমে থাকে তাহলে একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া জরুরি।

শেষ কথা

আশা করছি আপনারা আমাদের এই পোস্ট থেকে দাঁতের ব্যথার ট্যাবলেট এর নাম জানতে পেরেছেন।  কারণ এখানে আমরা বিভিন্ন ধরনের দাঁতের ব্যথার জন্য ট্যাবলেটের নাম উল্লেখ করেছি। উপরে উল্লেখিত ঔষধ গুলোকে আপনি যেকোন ফার্মেসির দোকান থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। যদি এই পোস্ট আপনাদের কাছে তথ্যবহুল হয়ে থাকে তাহলে আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে এই পোস্ট শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ