সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় কার্যকরী টিপস

চিকন স্বাস্থ্য নিয়ে সবাই অনেক বেশি চিন্তিত, মোটা হওয়ার জন্য অনেক বেশি উদ্বিগ্ন হয়ে থাকেন। যে কিভাবে অল্প দিনে মোটা হওয়া যায়। রোগা শরীর পাতলা দেখলে আত্মীয়-স্বজন বন্ধু-বান্ধবেরা ও অনেকেই নানা রকম জিজ্ঞাসা প্রশ্ন করে থাকেন। এতে অনেক চিকন মানুষ রয়েছেন যারা বির*ক্তবোধ করে থাকেন। তবে আপনি চাইলে খুব অল্পদিনে মোটা হতে পারবেন। আর চিকন স্বাস্থ্যের কারণে নিজে সৌন্দর্যটা প্রকাশ করতে কয়েকবার ভাবতে হয়।

তবে এমন অনেক ঔষধ রয়েছেন যারা মোটা হওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে গ্রহণ করছেন। কিন্তু মোটা হতে পারছেন না, আবার অনেকে রয়েছেন যারা অনেক ঘরোয়া উপায় অবলম্বন করতেছেন কিন্তু মোটা হতে পারতেছেন না। তবে আপনি যদি আমাদের আলোচনা সম্পূর্ণ দেখে নেন। তাহলে আপনি সাত দিনের মধ্যে মোটা হতে পারবেন। এবং সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে পারবেন। তবে আপনাকে অবশ্যই সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে হবে।

সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায়

প্রত্যেক রোগা মানুষ ওজন বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন উপায় অনুসন্ধান করে থাকেন। অনেকেই আবার মনে মনে প্রশ্ন করে থাকেন সত্যি কি এক সপ্তাহে বা ৭ দিনে মোটা হওয়া সম্ভব। আমি বলব হ্যাঁ সম্ভব, মাত্র সাত দিনেই আপনি আপনার শরীরের দুই থেকে তিন কেজি পর্যন্ত ওজন বৃদ্ধি করতে পারবেন। তবে এই ওজন বাড়ানোটা এতটা সহজ বলে গণ্য হবে না। এজন্য আপনাকে প্রচুর নিয়ম পালন করতে হবে। বিশেষ করে খাওয়া-দাওয়া ব্যাপারটা অনেক সতর্কতার সাথে পালন করতে হবে।

তবে কিভাবে আপনি ওজন বাড়াবেন, আপনার প্রতিদিনের খাবার তালিকায় কোন কোন খাবার গুলো রাখবেন। এবং কোন খাবার গুলো খেলে খুব দ্রুত মোটা হতে পারবেন। বিশেষ করে ইসলামিক ভাবে কিভাবে মোটা হওয়া যায় তার সম্পূর্ণ প্রশ্ন নিয়ে আজকের আলোচনায় বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে। আশা করা যায় আপনি সাত দিনের মত হওয়ার উপায় গুলো বিস্তারিত জানলে আপনার চিকন স্বাস্থ্য খুব দ্রুত মোটা হয়ে যাবে। তাই সম্পূর্ণ পোস্ট বিস্তারিত দেখু*ন।

ওজন বাড়ানোর সহজ উপায়

এই ওজন বাড়ানোর সহজ উপায় বলা গেলেও, ওজন বাড়ানো অতটাও সহজ নয়। শুধু ওয়ার্কআউট নয়, স্বাস্থ্যকর ডায়েটের জন্য শৃঙ্খলার পাশাপাশি ধৈর্যও প্রয়োজন। ওজন কমানো যতটা কঠিন তার থেকেও শরীরে ওজন বৃদ্ধি করা অনেক বেশি কঠিন। প্রত্যেক চিকন মানুষের স্বপ্ন স্বাস্থ্যকে একটু বাড়িয়ে নেওয়া, কিন্তু অনেক ধৈর্য এবং পরিশ্রমের পর খুব অল্প সংখ্যক মানুষের ওজন খুব সহজে বৃদ্ধি হয়ে যায়।

প্রতিদিনের খাবার তালিকায় প্রচুর প্রোটিনযুক্ত খাবার রাখতে হবে, পরিমাণ মতো ঘুমাতে হবে। হালকা ব্যায়াম করতে হবে, এবং মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকতে হবে। অতিরিক্ত রাত জাগা যাবে না। এবং প্রয়োজনে থেকে একটু অতিরিক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে। আর এই কাজগুলোই যদি যথা নিয়মে সাত দিন পর্যন্ত করতে পারেন তাহলে আপনি খুব দ্রুতই মোটা হতে পারবেন। তাহলে একটি নিচে প্রবেশ করে আপনার খাদ্য তালিকা জেনে নিন। এবং কয়েকটি কার্যকর টিপ সম্পর্কে জেনে নিন।

অল্প দিনে মোটা হওয়ার উপায়

অল্প দিনে মোটা হতে গেলে অবশ্যই স্বাভাবিক থেকে বেশি পরিমাণ ক্যালরিযুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে। অর্থাৎ একজন মানুষের বা পুরুষের প্রতিদিন ২ হাজার থেকে ২৫০০ ক্যালোরি খাবার গ্রহণ করা উচিত। তবে আপনি যদি এর থেকে বেশি পরিমাণ ক্যালরিযুক্ত খাবার গ্রহণ করতে পারেন। তাহলে আপনি অল্প দিনে খুব দ্রুত মোটা হতে পারবেন। অতএব নিচে কয়েকটি প্রক্রিয়া খুব সংক্ষিপ্ত আকারে উল্লেখ করা হলো। নিচের দেওয়া সংক্ষিপ্ত উপায় গুলো যদি সঠিকভাবে পালন করতে পারেন। তাহলে আপনি খুব দ্রুত মোটা হতে পারবেন। তাই নিচের দেওয়া প্রক্রিয়াগুলো দেখু*ন।

  • খাবার গ্রহণ বৃদ্ধি
  • ব্যায়াম সঞ্চালন
  • পর্যাপ্ত ঘুম বা বিশ্রাম
  • খারাপ চর্বি এড়িয়ে চলুন
  • ক্যালোরি খরচ বাড়ান
  • গণনা সাহায্য করে
  • বিছানায় যাওয়ার আগে কিছু দুধ পান করুন
  • প্রোটিন গ্রহণ করুন
  • ওজন উত্তোলন
  • প্রচুর পানি পান করুন
  • আপনার খাবারগুলি বুদ্ধিমানের সাথে চয়ন করুন
  • স্ট্রেস থেকে দূরে থাকুন
  • চর্বি পেতে স্মুদি পান করুন
  • এখন নাস্তা করার সময়
  • ধূমপান ত্যাগ করুন

মোটা হওয়ার 10 টি কার্যকর টিপস

বিভিন্ন কারণে আমাদের শরীর রোগা পাতলা হতে পারে। বিশেষ করে কম খাবার গ্রহণ করা, খাবারে অরুচি থাকা, দুশ্চিন্তায় থাকা। এবং স্বপ্নকে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম না হওয়া এবং রাত জেগে থাকা। বর্তমানে তরুণদের মাঝে এই সমস্যাটি বেশি দেখা দিয়েছে। দুশ্চিন্তা বেশি দেখা দেওয়া এবং অতিরিক্ত পরিমাণ রাত জেগে থাকা। যা দুটোই স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি ক্ষতিকর। বিশেষ করে রাত জেগে থাকলে আপনি মোটা হওয়ার জন্য বিভিন্ন নিয়ম কানুন মেনে চললেও মোটা হওয়া একটু কষ্টকর হয়ে যায়।

যদি কেউ মোটা হতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে এশার নামাজের পরপরই ঘুমোতে যেতে হবে। এবং সকালে ঠিক ফজর নামাজের আগে আপনাকে ঘুম থেকে উঠতে হবে। তবে চেষ্টা করবেন দুপুরের খাবার শেষে হালকা পরিমাণ ঘুমানো। তবে সব মিলিয়ে পর্যাপ্ত পরিমাণে আপনাকে ঘুমাতে হবে। তবে মোটা হওয়ার ১০টি কার্যকরী টিপস আপনাদের সাথে নিচে শেয়ার করেছি। তাই মোটা হওয়ার ১০টি কাজ করে টিপস গুলো সংক্ষিপ্ত আকারে দেখে নিন।

ব্যায়াম করাঃ

যে যাই বলুক মোটা হওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই পরিমিত পরিমাণ ব্যায়াম করতে হবে। বিশেষ করে আপনাকে সকালবেলা হালকা ব্যায়াম করতে হবে। এবং বিকালবেলা একটু হালকা ব্যায়াম করতে হবে। অনেকেই মনে করেন ব্যায়াম করলে শরীর এর ওজন কমে যায়। কিন্তু এটি ভুল ধারণা, সুস্বাস্থ্যবান থাকতে অবশ্যই ব্যায়াম করা অনেক বেশি প্রয়োজন।

বার বার খাবার গ্রহণঃ

মোটা হতে গেলে অবশ্যই আপনাকে অবশ্যই স্বাভাবিকের থেকে বেশি পরিমাণ খাবার গ্রহণ করতে হবে। ধরুন আপনি যদি প্রতিদিন ১৫০০ থেকে ২০০০ ক্যালরি পর্যন্ত খাবার গ্রহণ করেন। তাহলে মোটা হওয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই এর থেকে প্রায় ৪০০ থেকে বেশি পরিমাণ খাবার গ্রহণ করতে হবে। প্রতিদিন তিন বেলায় দুই হাজার থেকে ২৫০০ ক্যালোরি খাবার গ্রহণ করা অনেক বেশি কঠিন।

তাই প্রতিদিন বেশি বেশি করে বারবার খাবার গ্রহণ করুন। যেমন সকাল সাতটা একবার হালকা নাস্তা করে খেতে পারেন। আবার দুপুর ১২:০০ টায় একবার খেতে পারেন। দুপুরের পর দুইটার সময় খেতে পারেন, আবার বিকাল পাঁচটার সময় সন্ধ্যার আগে খেতে পারেন। এবং সর্বোপরি রাতে ঘুমানোর দুই ঘন্টা আগে খাবার গ্রহণ করুন।

খাবারে রাখু*ন কার্বোহাইড্রেডঃ

ভাত এবং রুটিতে কাই্বোহাইড্রেট থাকে এবং এটি এর প্রধান উৎস। তাই আপনার খাবার তালিকায় এসব খাবার রাখতে পারেন প্রতিদিন। ওজন বৃদ্ধিতে কার্বোহাইড্রেড খুবই প্রয়োজন। অর্থাৎ স্বাভাবিক পরিমাণের থেকে একটু বেশি কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার গ্রহণ করুন। আর মোটা হওয়ার জন্য এই পদ্ধতি অনেক বেশি কার্যকরী।

বেশি ক্যালোরি গ্রহনঃ

আপনার শরীরের চাহিদা তুলনায় প্রতিদিন 400 থেকে 700 ক্যালোরি যুক্ত খাবার গ্রহণ করুন। আর এই অতিরিক্ত ৪০০ থেকে ৭০০ ক্যালোরি খাবার খেতে অবশ্যই আপনাকে উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার খেতে হবে। যেমন প্রতিদিন খাবার তালিকায় দুধ মধু এবং ডিম রাখতে পারেন।

সঠিক প্রোটিন গ্রহণঃ

সঠিক পরিমাণে প্রোটিন পেতে অবশ্যই দুধ পান করুন। সাথে ডিম খেতে পারেন সকালে এবং রাতে। জেনে রাখু*ন সঠিক পরিমাণ প্রোটিনযুক্ত খাবার না খেলে আপনি মোটা হতে পারবেন না। এজন্য সকালে খালি পেটে একটি থেকে দুটি ডিম খেয়ে নিন। এবং রাতে ঘুমানো পূর্বে এক গ্লাস দুধ খেয়ে নিন। এতে আপনি অনেকটা প্রোটিন পেয়ে যাবেন। এক সপ্তাহ পর্যন্ত এভাবে প্রোটিনযুক্ত খাবার খেলে আপনাকে মোটা হতে অনেকটা সাহায্য করবে।

ড্রাই ফ্রুটস খাবেনঃ

এই আর ড্রাই ফুডস খাবার  তালিকার মধ্যে রয়েছে কাজুবাদাম, কিসমিস, পেস্তা আরও ইত্যাদি। তাই এসব খাবার আপনার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অতিরিক্ত হিসেবে রাখু*ন। আশা করা যায় এই খাবারগুলো খেয়ে আপনি খুব দ্রুত মোটা হতে পারবেন।

টেনশনমুক্ত থাকুনঃ

টেনশন হচ্ছে মারাত্মক একটি রোগ। যা নতুন নতুন রোগের সূচনা তৈরি করে থাকে। তাই আপনি যদি মোটা হতে চান আপনাকে টেনশন মুক্ত থাকতে হবে। যদি কোন রকম টেনশনে থাকেন তাহলে আপনি মোটা হতে কখনোই পারবেন না। তাই মোটা হতে টেনশন মুক্ত থাকুন।

পরিমিত ঘুমানঃ

মোটা হতে গেলে অবশ্যই হ্যাঁ প্রতিদিন আপনাকে সর্বনিম্ন আট ঘন্টা পর্যন্ত ঘুমাতে হবে। এবং রাতের ঘুম অনেক বেশি কার্যকরী, তাই রাত না জেগে চেষ্টা করবেন এশার নামাজের পর পর ঘুমানোর। এবং ফজরের আগে ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করবেন। আশা করা যায় পরিমিত পরিমাণ ঘুমালে এবং সাথে সঠিক খাবার গ্রহণ করলে আপনি এক সপ্তাহের মধ্যে মোটা হতে পারবেন।

ঘুমানোর আগে দুধ মধু খানঃ

যদি এক সপ্তাহে মোটা হতে চান, তাহলে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রত্যেক রাতে ঘুমানোর আগে দুধ এবং মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। আর যদি মধু এবং দুধ একসাথে মিশিয়ে না খেতে পারেন তাহলে আলাদা আলাদা করে খেয়ে নিতে পারেন। ঘুমানোর আগে এক গ্লাস দুধ খান। এবং এক থেকে দুই চামচ পর্যন্ত মধু খেয়ে নিন। আশা করা যায় শরীরের অনেকটা শক্তি পেয়ে যাবেন এবং অনেকটা স্বাস্থ্যের অধিকারী হবেন।

ডায়েটে চকলেটঃ

মোটা হতে গেলে কালো চকলেট বা কালো চকলেট গুলো অনেক বেশি উপকারী। এতে অনেকটা পরিমাণ ফ্যাট থাকে, তবে গ্রহণ করলে শরীরের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। তাই মোটা হতে সামান্য পরিমাণ ডায়েট চকলেট গ্রহণ করুন। আশা করা যায় এক সপ্তাহ পর্যন্ত রুটিন মেনে চললে আপনি মোটা হতে পারবেন।

৭ দিনে মোটা হওয়ার ওষুধের নাম কি

অনেক রয়েছেন যারা বিভিন্ন পুষ্টিবিদদের সাথে যোগাযোগ করে থাকেন মোটা হওয়ার জন্য। কিন্তু কোন লাভ হয়নি, এতে করে দেখা গেছে যে ওষুধ খাওয়ার ফলে  শরীরের বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া লক্ষণীয় হয়েছে। আপনি যদি মোটা হতে চান তাহলে নিচে দেওয়া ওষুধগুলো খেতে পারেন। মূলত যাদের খাওয়ার অরুচি রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে এই ওষুধগুলো অনেক বেশি উপকারী হতে পারে। তবে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধগুলো ক্রয় করে গ্রহণ করতে থাকুন।

  • মির্টাজাপাইন
  • ইন্ডিয়ান গুড হেলথ
  • মেজেস্ট্রোল অ্যাসিটেট
  • সাইপ্রোহেপ্টাডিন
  • পিউটন সিরাপ
  • সিনকারা সিরাপ
  • রুচিবেট

মোটা হওয়ার ওষুধের দাম কত

মোটা হওয়ার জন্য বিভিন্ন ঔষধ বা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। সেটা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে ট্যাবলেট অথবা সিরাপ বা ভিটামিনের উপরে। যদি মোটা হওয়ার জন্য ওষুধ কিনতে চান তাহলে সব ২০০ থেকে ৩০০ টাকা একটি সিরাপ কিনতে পারবেন। আর এছাড়া কিছু কিছু ঔষধ রয়েছে মোটা হওয়ার জন্য, যে ওষুধগুলোর দাম ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা।

ইসলামী ভাবে মোটা হওয়ার উপায়

ইসলামের নির্দেশনা অনুযায়ী মোটা হতে চান তাহলে আপনি সকালে খালি পেটে খেজুর এবং সাথে শসা পারেন। আবদুল্লাহ ইবনু জাফর রা. বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, নবী সা. শসা খেজুরের সাথে একত্রে খেতেন। (সহীহ্, ইবনু মা-জাহ ৩৩২৫) তাই শসা এবং খেজুর খাওয়া সুন্নাহ। তাই এই নিয়মটি আপনি প্রতিদিন মোটা না হওয়া পর্যন্ত আমল করতে পারেন। অবশ্যই বিশ্বাসের সঙ্গে এই আমলটি আপনাকে করতে হবে।

মোটা হওয়ার জন্য প্রতিদিনের খাদ্য তালিকা

এক কথায় মোটা হতে গেলে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার তালিকায় রাখতে হবে। যেমন প্রতিদিন সকালে দুটি থেকে তিনটি করে কলা খেতে পারেন। তারপর দুধ খেতে পারেন এক গ্লাস থেকে দুই গ্লাস। এবং চাইলে মধু খেতে পারেন। দুই থেকে তিনটি করে বাদাম খেজুর এবং ডুমুর খেতে পারেন। সাথে কিসমিস এবং মটরশুটি খেতে পারেন।

খাবারে কার্বোহাইড্রেট ও চর্বিযুক্ত খাবারকে অগ্রাধিকার দিন। রুটি এবং ভাত পরিমিত পরিমাণ প্রতিদিন খেতে পারেন। এছাড়া প্রত্যেক বেলায় আপনার খাবারে মাখন এবং ঘি ব্যবহার করতে ভুলবেন না। শুকনো ফল এবং চর্বিযুক্ত দুধ খান। এছাড়া মোটামুটি মাছ এবং মাংস অনেক বেশি প্রয়োজনীয়। তাই অতিরিক্ত গ্রহণ না করে পরিমাণ মতো গ্রহণ করুন। আশা করা যায় সাত দিনে অনেক বেশি মোটা হতে পারবেন।

৭ দিনে মোটা হওয়ার ঘরোয়া তালিকা

দ্রুত এবং ৭ দিনে মোটা হওয়ার জন্য বিভিন্ন আলোচনা ইতিমধ্যে উপরের সম্পন্ন করা হয়েছে। এছাড়াও কিছু ঘরোয়া উপায় রয়েছে, যেগুলো অবলম্বন করলে আপনি সাত দিনে মোটা হতে পারবেন। অতএব নিচে দেওয়া কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তালিকা দেখে নিন। আশা করা যায় খুব দ্রুত আপনি মোটা হতে পারবেন।

  • পানি সঠিকভাবে পরিমিত পান করাঃ
  • পরিমিত ঘুমানো এবং কেনঃ
  • মোটা হওয়ার ব্যায়ামঃ
  • সময়মতো খেতে হবেঃ
  • রাতজাগা কমিয়ে ফেলুনঃ
  • গোছানো জীবন-যাপনে অভ্যস্থ হোনঃ

সকালে রোজ খালি পেটে কি কি খেলে মোটা হওয়া যায়

আজ সকালের নাস্তা মোটা হওয়ার জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাই মোটা হতে গেলে সকালের নাস্তায় বিশেষ বিশেষ খাবার রাখু*ন। যাতে খুব সহজে মোটা হতে পারেন। যেমন সংক্ষিপ্ত খাবার তালিকার মধ্যে দুধ, কলা, ডিম ও খেজুর ইত্যাদি রাখতে পারেন। এছাড়াও সকাল বেলা স্বাভাবিক থেকে একটু অতিরিক্ত পরিমাণ খাবার গ্রহণ করতে পারেন যে সকল খাবারগুলো। তবে পরিমাণ মত পানি গ্রহণ করুন।

শেষ কথা

আশা করা যায় আপনি ইতিমধ্যে মোটা হওয়ার বিভিন্ন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। তবে আজকের আলোচনায় আমরা সম্পূর্ণভাবে সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা সম্পন্ন করেছি। আশা করতেছি এই পোস্ট থেকে আপনার অনেক বেশি উপকৃত হয়েছেন। যদি সত্যি মোটা হতে চান তাহলে উপরুক্ত নিয়মগুলি যথাযথভাবে এক সপ্তাহ পর্যন্ত মেনে চলুন। অতএব আপনার আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে এই পোস্ট শেয়ার করে জানিয়ে দিন। ধন্যবাদ